ঢাকা বুধবার, ১৪ই এপ্রিল ২০২১, ২রা বৈশাখ ১৪২৮


করোনায় বাংলাদেশি পিতা-পুত্রের মৃত্যু


প্রকাশিত:
২৯ মার্চ ২০২০ ২১:৫৮

আপডেট:
২৯ মার্চ ২০২০ ২৩:০২

সংগৃহীত

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার কাজির পাগলা গ্রামের সন্তান আমেরিকা প্রবাসী চিকিৎসক শাকিল করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। করোনায় মারা গেছেন তার পিতা শফিকুল ইসলামও। আর হাসপাতালে করোনার সাথে লড়াই করছেন তার মা রাশিদা খানম।

পরিবারের এই তিন সদস্যই সম্প্রতি সেখানে করোনায় আক্রান্ত হন। পরে অল্প সময়ের ব্যবধানে পিতা-পুত্র শুক্রবার হাসপাতালে মারা যান।

মুন্সীগঞ্জ জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কাজির পাগলা গ্রামের বাসিন্দা মো. অলিউর ইসলাম অলি জানান, এই মৃত্যুর খবরে কাজির পাগলা গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে ।

কাজির পাগলার বাসিন্দা বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের মহাসচিব (অর্থ ও পরিকল্পনা) আবুল বাসার বলেন, ‘শফিকুল আমার ক্লাস ফ্রেন্ড। তার মৃত্যুর সংবাদ আমাকে ব্যথিত করেছে। শফিক এক সময় ভাল ফুটবল খেলতো। কাজির পাগলা বাজারে তার সবচেয়ে বড় ওষুধের দোকান ছিল।’

তিনি বলেন, ১৯৭২ সালে আমরা কাজির পাগলা এটি ইনস্টিটিউশন থেকে একই সাথে মেট্রিক পাস করি। ১৯৯১ সালে শফিক ডিবি ওয়ান লটারি পেয়ে সপরিবারে আমেরিকায় যায় এবং সেখানেই বসবাস করছিল। তারপরও এলাকার সাথে ভালো যোগাযোগ ছিল। সেখানেই তাদের দাফন করা হচ্ছে বলে শুনেছি।

এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কাতারে এক বাংলাদেশী মারা গেছে। ৫৭ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি ১৬ মার্চ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তার শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া যায়। সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার পরও অন্যান্য জটিল রোগ থাকায় তিনি শনিবার মারা যান। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কাতারে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ বলেন, ‘এটা দুর্ভাগ্যজনক। এটি কাতারে প্রথম মৃত্যু।’ মৃতদেহের কী ব্যবস্থা করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটি নিয়ে তাদের সঙ্গে আমি আলোচনা করব। কারণ অন্য সময়ের সঙ্গে এখনকার সময় মিলবে না।’ এ পর্যন্ত ৫৯০ জন আক্রান্ত এবং ৪৩ জন সুস্থ হয়েছে। কাতার কর্তৃপক্ষ যথেষ্ট ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top